28 March- 2020 ।। ১৫ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ।। রাত ২:২৩ ।। রবিবার

ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরামের উদ্যোগে খাগড়াছড়িতে সংবর্ধনা ও বিনামূল্যে বই বিতরণ

দহেন বিকাশ ত্রিপুরা ,খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

২০১৯সালে এসএসসি পরীক্ষায় পাশকৃতত্রিপুরা শিক্ষার্থীদের ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরাম, বাংলাদেশ, খাগড়াছড়ি সদর শাখার উদ্যোগে সংবর্ধনা ও বিনামূল্যে পাঠ্যবই বিতরণঅনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে সংগঠনটি।

০৫জুলাই ২০১৯খ্রি. শুক্রবার বিকালে সংগঠনটির আয়োজনে খাগড়াছড়ি জেলা সদর ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কৃতী শিক্ষার্থী সংবর্ধনাও একাদশ শ্রেণীর বিনামূল্যে পাঠ্যবই বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এবং (শিক্ষা ও আইসিটি) (অ: দা:) জনাব মোঃ হাবিবুল্লাহ (মারুফ) শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, শিক্ষার্থীরা মাদকদ্রব্য থেকে বিরত, এইচএসসি পড়াকালীন রাজনৈতিক থেকে বিরত থাকা এবং কলেজে ভর্তি হওয়ার পর থেকে শুরু করে রুটিনমাফিক পড়াশোনা করার পরামর্শ ও দিক নির্দেশনা কথা বলেন। বক্তব্যে শেষে তিনি, খাগড়াছড়ি সদর শাখাকে স্বাগত বক্তব্যের প্রেক্ষিতে বর্তমান ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে কম্পিউটার সেট প্রদান ও ভবিষ্যতে সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন।

ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরাম, বাংলাদেশ, খাগড়াছড়ি সদর শাখার সভাপতি ও সাংবাদিক দহেন বিকাশ ত্রিপুরার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেনখাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ ও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)’র সভাপতি প্রফেসর বোধিসত্ত্ব দেওয়ান, বাংলা একাডেমী পুরষ্কারপ্রাপ্ত লেখক ও গবেষক প্রভাংশু ত্রিপুরা, পেরাছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তপন বিকাশ ত্রিপুরা, বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ খাগড়াছড়ি সদর আঞ্চলিক শাখার সভাপতি কাজল বরন ত্রিপুরা ও ত্রিপুরা স্টুডেন্টস্ ফোরাম, বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় সভাপতি প্রেম কুমার ত্রিপুরা প্রমুখ।

এসময় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ কৃতী শিক্ষার্থী ও অভিভাবকসহ শুভাকাঙ্খীরা উপস্থিত ছিলেন ।

সংগঠনের খাগড়াছড়ি সদর শাখার সাধারণ সম্পাদক খলেন জ্যোতি ত্রিপুরার সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্যে নিশি ত্রিপুরা এবারের ২০১৯সালে পুরো খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলায় পাশের সংখ্যা ৩৮৮জন, তারমধ্যে খাগড়াছড়ি সদর উপজেলায় ১৭৮জন। তারমধ্যে নারীর সংখ্যা বেশি। আর পুরো জেলায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ০৫ (পাঁচ) জন। আর এবারের বিনামূল্যে বই প্রদানে আবেদন ফরমের জন্য আহবান করা হলে শুধুমাত্র খাগড়াছড়ি সদর ‍উপজেলা থেকে প্রায় ১শতের কাছাকাছি আবেদন করা হয়। আর আমরা এখান থেকে ৫০জনকে প্রাথমিক বাছাই করে বই প্রদানে সিদ্ধান্ত নিলেও আর্থিক সংকটের কারণে তা সম্পূর্ণ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তবু ত্রিপুরা সমাজের যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে যারা ইতিপূর্বে সহযোগিতা করেনি তাদেরকে সহযোগিতা প্রদানের আহবান করেন। সহযোগিতায় হাত বাড়িয়ে আসলে তাহলে যারা আর্থিক ভাবে অস্বচ্ছল তাদেরকে বই পৌঁছে দিতে পারব বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আলোচনা সভা শেষে খাগড়াছড়ি জেলায় এবারে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত পাঁচজন কৃতী ত্রিপুরা শিক্ষার্থীদের হাতে সনদপত্র ও সম্মাননা ক্রেস্ট এবং আর্থিক ভাবে অস্বচ্ছল ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে একাদশ শ্রেণীর পাঠ্যবই তুলে দেন প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিবৃন্দ।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কৃতী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মানপত্র পাঠ করেন সংগঠনের খাগড়াছড়ি সদর শাখার নির্বাহী সদস্য ও কৃতী শিক্ষার্থী সংবর্ধনা ও বই বিতরণ আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব চনিতা ত্রিপুরা।

Sharing is caring!



এই বিভাগের আরো খবর...