24 November- 2020 ।। ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ ।। দুপুর ১২:৪৯ ।। মঙ্গলবার

ডাঈস বাংলাদেশের আয়োজনে করোনায় তরুণ প্রজন্মের মানসিক কথাবার্তা বিষয়ক লাইভ প্রোগ্রাম অনু্ষ্ঠিত

মোঃ সাখাওয়াত হোসেনঃ যুব স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ডাঈস বাংলাদেশের আয়োজনে তরুণ প্রজন্মের মানসিক কথাবার্তা বিষয়ক লাইভ প্রোগ্রাম অনু্ষ্ঠিত হয়।

তরুণ প্রজন্মের মানসিক কথাবার্তা বিষয়ক লাইভ প্রোগ্রাম অনু্ষ্ঠিত হয় ৩ই সেপ্টেম্বর ২০২০ রাত ০৮টা ৩০ মিনিটে শুরু হয়।উক্ত লাইভ অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন ডাঈস বাংলাদেশের স্বেচ্ছাসেবী আর্থি কারিম।অথিতি হিসেবে ছিলেন মোঃ জহির উদ্দিন ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিষ্ট, সহকারী অধ্যাপক, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট।প্রায় ১ঘন্টা ব্যাপী অনুষ্ঠিত এ লাইভটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ডাঈস বাংলাদেশের ফেসবুক,টুইটার,ইন্সটাগ্রাম পেজে সম্প্রচারিত হয়ে থাকে।
করোনায় তরুণ প্রজন্মের মানসিক কথাবার্তা নিয়ে আলোচনায় বলেন,”বর্তমানে প্রায় সবাই অচেতন অবস্থায় রাস্তায় বের হচ্ছে, মাস্ক ছাড়া গল্প করছে, ঠিক ভাবে মাস্ক ব্যবহার করছে না।এছাড়াও করোনায় অনেকের রুটিন নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, তাতে চাকরিজীবি, শিক্ষার্থীদের সাধারণ অবস্থায় ফিরতে কষ্ট হব।অনলাইনে অনেকে বেশি অসুস্থ হয়ে যাচ্ছে, তাতে অনেকে দ্বিতীয় জীবন হিসেবে দেখছে তাতে কিছু মানুষ অবসাদগ্রস্ত, বিষন্নতায় আক্রান্ত হবে।অতএব পুরনো কথা, চিন্তা, কার্যক্রমকে মনে আনা যাবে না, বর্তমানে কি করছি, কি অবস্থা তা নিয়েই বেশি ভাবতে হব।পারিবারিক সমস্যাকে পারিবারিক থেরাপি দিয়ে কমানো যায়, এখন সবাই ঘরে থাকায় অনেক ভাল কথাও খারাপ ভাবে আসছে, পরিবারের সবার সাথে সুন্দরভাবে কথা বলেও তা সমাধান করা যায়।এবং মোঃ জহির উদ্দিন আরোও বলেন,আত্বহত্যা এখন বেশ সমস্যার তবে এখনও গবেষণার না হওয়ায় আসল চিত্র বুঝা যাচ্ছে না, তবে আত্বহত্যা তখনই হয় যখন জীবনে কোন আশা থাকে না। এর জন্য অনেক সমাধান আছে, মানসিক হাসপাতালে যোগাযোগ করলে অনেক ওষুধ আছে যা দিয়ে তা রোধ করা সম্ভব। বাংলাদেশে সরকারি হাসপাতালে মাত্র ১০টাকায় মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেয়া যায়।লাইভ প্রোগ্রাম অনুষ্ঠানটির গ্রন্থনা ও পরিকল্পনায় ছিলেন ইয়াসিন হোসেন রাকিব ও আদনান মেহমুদ সাম্রাট।এবং গবেষণায় ছিলেন মোঃ সাখাওয়াত হোসেন।

Sharing is caring!



এই বিভাগের আরো খবর...