28 March- 2020 ।। ১৫ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ ।। রাত ৩:০৩ ।। রবিবার

খাগড়াছড়িতে কেএমকেএস’র উদ্যোগে ‘‘মেয়ে ১৮ ছেলে ২১ এর আগে নয় বিয়ে” স্লোগানে সচেতনতামূলক সভা

দহেন বিকাশ ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়িতে খাগড়াপুর মহিলা কল্যাণ সমিতির আয়োজনে প্রাইম প্রকল্প, বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ (বিএনপিএস) সহযোগিতায় ‘‘মেয়ে ১৮ ছেলে ২১ এর আগে নয় বিয়ে” স্লোগানে ‘‘বাল্যবিবাহ, যৌন হয়রানী প্রতিরোধ ও প্রতিকার এবং তথ্য প্রযুক্তির সৎ ব্যবহার বিষয়ক’’ সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার ২৫সেপ্টেম্বর সকালে জেলা সদর কমলছড়ি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় হল রুমে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৃলা দেব। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী একজন নারী। তিনি সকল নারীর জন্য একটা মডেল—পুরো বাংলাদেশের জন্য মডেল। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন,কেউ বাল্যবিবাহ হচ্ছে দেখলে বা শুনলে তা প্রশাসনকে জানাবেন আর কোন অন্যায় সংক্রান্ত-অনৈতিক সংক্রান্ত কার্যক্রম দেখলে ৯৯৯ এবং ৩৩৩নম্বর কল করার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের অবগত করেন। নিজে বিপদ নিজেকে রক্ষা করতে হবে, নিজেকে সচেতন হতে হবে। অপরাধী যে হোক না কেন তাকে অবশ্যই শাস্তি পেতে হবে তার প্রশাসনকে অবগত করতে হবে..জানাতে হবে। বিয়ের উপর্যুক্ত বয়স হলেও নিজে পায়ে নিজেকে দাঁড়ানোর আহবান জানান।

এসময় খাগড়াপুর মহিলা কল্যাণ সমিতির’ প্রাইম প্রকল্পের প্রকল্প সমন্বয়কারী কাজল বরণ ত্রিপুরার সঞ্চালনায় সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মিজ শেফালিকা ত্রিপুরার সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, এআরএডি-সিএইচটি প্রকল্পের প্রকল্প সমন্বয়কারী মিজ মনিষা তালুকদার, এসএমসির সভাপতি র্কীতিময় চাকমা, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অরুন জ্যোতি চাকমা, অভিভাবক প্রতিনিধি বীর বাহু চাকমা প্রমুখ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালযের সহকারি শিক্ষক-শিক্ষিকা, অভিভাবক, ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দসহ স্থানীয় সুশীল সমাজ। এসময় ধারণাপত্র পাঠ করেন সংস্থার ডেভেলপমেন্ট ফ্যাসিলিটেটর (জেন্ডার) মুক্তা ভট্টাচার্য।

Sharing is caring!



এই বিভাগের আরো খবর...