13 July- 2020 ।। ২৯শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ ।। রাত ৮:৩৬ ।। সোমবার

আপনার সন্তানকে প্রাইম ইউনিভার্সিটিতে ইঞ্জিনিয়ারিং কেন পড়াবেন

সিও ডেস্ক :  সায়েন্স মানে যদি বিজ্ঞানের ‘তত্ত্বমূলক অগ্রগতি বোঝায়, তবে ইঞ্জিনিয়ারিং হলো এর ব্যবহারিক প্রয়োগ। বাংলাদেশে যার বাস্তব রূপ পেয়ে থাকে ডিপ্লোমা কিংবা বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারদের হাত ধরে। সময়ের সাথে সাথে ইঞ্জিনিয়ারিং-এর চাহিদারও বিবর্তন হয়েছে বিচিত্রভাবে। আর ইঞ্জিনিয়ারিং মানে হচ্ছে প্রকৌশলের মাধ্যমে কাজ সম্পন্ন করা। বিশ্বায়নের এই যুগে ইন্ডাস্ট্রির সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে। আর এ কারণেই বাড়ছে ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষার গুরুত্ব। নিশ্চিত কর্মসংস্থানের একমাত্র এবং পরীক্ষিত মাধ্যম হচ্ছে ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা। সারা বিশ্বে জেনারেল শিক্ষার চেয়ে কারিগরি শিক্ষা বেশি জনপ্রিয় ও মর্যাদাপূর্ণ। যে কাজ অতি সহজ ভাবে, কম খরচে, কম সময়ে, কম জনশক্তিতে করা যায় তাকে প্রকৌশলের মাধ্যমে কাজ করা বলে

সন্তানের ভবিষ্যত্ নিয়ে সব বাবা-মা , অভিভাবক  চিন্তামগ্ন থাকে আমিও তার বাইরে নয় আমার সন্তানকে সুন্দর স্বপ্নের গন্তব্যে যেতে তাকেই পরিশ্রম করতে হবে তবু প্রতিষ্টান গুরুত্ব বহন করে আমি  মধ্যবৃত্ত কিন্তু অভিভাবক তাই সন্তানের স্বপ্ন পূরনের মধ্যবৃত্তকে মাথাই রেখে সাধ্যরে মধ্যে পরিপূর্ণতা খুজতে গিয়ে প্রাইম ইউনিভার্সিটি বেস্ট মনে হয়েছে

ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার জন্য বাংলাদেশে যে কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় সুবিধাজনক অবস্থা তৈরি করেছে। এর মধ্যে অন্যতম প্রাইম ইউনিভার্সিটি,বর্তমানে রাজধানীর মিরপুর ১ মাজার রোডে স্থায়ী ক্যাম্পাস বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষা কার্যক্রম। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গ্রাজুয়েটদের দক্ষ ও যোগ্য করে তোলার পাশাপাশি তাদেরকে চাকরির উপযোগী করে তোলাই এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্য। প্রাইম  ইউনিভার্সিটিতে মোট ১৯ টি প্রোগ্রাম চালু রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে বিজ্ঞান অনুষদভূক্ত চার বিভাগ কম্পিউটার সায়েন্স এ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই), ইলেক্ট্রিক্যাল এ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) . ইলেক্ট্রনিক এ্যান্ড  কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং ও সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং

বাংলাদেশে যতগুলো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে; এর মধ্যে গুটিকয়েক প্রতিষ্ঠানের  ‘অভিজ্ঞ শিক্ষকমণ্ডলী, মানসম্মত ল্যাব, লাইব্রেরি ও শ্রেণিকক্ষ ,মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত প্রাইম ইউনিভার্সিটি  সিএসই বিভাগের অবস্থান সুদৃঢ়। বেশ কয়েকজন প্রফেসরসহ বিদেশী  থেকে ডিগ্রীপ্রাপ্ত অভিজ্ঞ শিক্ষকমণ্ডলীর (পূর্ণকালীন) দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে এই বিভাগ। রয়েছে পর্যাপ্ত যন্ত্রপাতি সজ্জিত এনালগ ও ডিজিটাল ইলেক্ট্রনিক্স ল্যাব; কম্পিউটার হার্ডওয়্যার ল্যাব; মাইক্রোপ্রসেসর ল্যাব; মাইক্রোকন্ট্রোলার ল্যাব; সফ্টওয়্যার ভিত্তিক ল্যাব সাধ্যরে মধ্যে পরিপূর্ণ এত কম খরচে একমাত্র প্রাইম দিচ্ছ এমন সুযোগ যা বাংলাদেশে  ১০৩ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নেই

অন্যতম সমৃদ্ধ বিভাগ ইইই- এ বিভাগটিতে আছেন স্বনামধন্য কয়েকজন প্রফেসরসহ দেশে-বিদেশে পড়ুয়া ফ্যাকাল্টি মেম্বার। রয়েছে ফিজিক্স ল্যাব, কেমিস্ট্রি ল্যাব, ডিজিটাল ইলেক্ট্রনিক্স ল্যাব, ইলেক্ট্রিক্যাল মেশিনস ল্যাব, মাইক্রোপ্রসেসর এ্যান্ড ইন্টারফেসিং ল্যাব, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইলেক্ট্রনিক্স ল্যাব, কন্ট্রোল সিস্টেম ল্যাব, ডিজিটাল সিগন্যাল প্রসেসিং ল্যাব এবং মাইক্রোওয়েবসহ প্রায় ১৬টি ল্যাবরেটরি।সম্প্রতি উন্নত কারিকুলাম ও মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করায় ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স (আইকিউএসি)-এর পিয়ার রিভিউ টিম কর্তৃক সার্টিফিকেট পেয়েছে এই বিভাগ।

পরিচালনার স্বীকৃতিস্বরূপ আইইবি কর্তৃক অ্যাক্রেডিটেশন পেতে যাচ্ছে এখানকার দুটি বিভাগ। এছাড়াও ইতোমধ্যেই আইইবি প্রতিনিধি দল বিভাগটি পরিদর্শন করেছেন। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সম্মানজনক এই সনদ অর্জন করার পর  বিশ্ববিদ্যালয়টির ইইই সিএসই স্নাতকধারীরা পেশাদার প্রকৌশলী হিসেবে স্বীকৃতির জন্য ‘আইইবি’তে আবেদন করতে পারবেন। এছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ভর্তি বা চাকরির জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিবেচিত হবেন তারা।তাই আমার সন্তানকে অন্য কোথাই কেন দিব প্রাইম ইউনিভার্সিটি ছাড়া

 

লেখক

অভিভাবক

ফিরোজ মাহমুদ

 

Sharing is caring!



এই বিভাগের আরো খবর...